ছাইড়া গেলাম মাটির পৃথিবী

ছাইড়া গেলাম মাটির পৃথিবী

জীবন খেলায় হারাইলাম সবই

{ বুকে জমাট বাঁধা অভিমান

কি নিঠুর এই নিয়তির বিধান }

রক্তে আমার মিশশা ছিল সুরেরই ছোঁয়া / হৃদয় দিয়া বাইয়া গেসি সংগীতের খেয়া

আশায় আশায় কাটল জীবন ঘোর / পার হইনাই তবু সুর সাগর

{ বুকে জমাট বাঁধা অভিমান / কি নিঠুর এই নিয়তির বিধান }

কিসের আশায় মন সঁপিলাম সুরেরই মেলায় / কি পাইলাম আর কি হারাইলাম সংগীতের খেলায়

কাইন্দা কাইন্দা বলে আমার মন / ভাঙল কেন সুরেরই স্বপন

{ বুকে জমাট বাঁধা অভিমান / কি নিঠুর এই নিয়তির বিধান }

সাদা কাফন পইরা গেলাম আন্ধার কবরে / রাইখা গেলাম আমারি গান তোমাদের তরে

আমায় মনে রাইখ চিরদিন / রঙ্গিন নেশায় কইরো না বিলিন

{ বুকে জমাট বাঁধা অভিমান / কি নিঠুর এই নিয়তির বিধান }


মাঝরাতে চাঁদ যদি

মাঝরাতে চাঁদ যদি আলো না বিলায়

ভেবে নেবো আজ তুমি চাঁদ দেখনি

আকাশের নীল যদি আঁধারে মিলায়

বুঝে নেবো তারে তুমি মনে রাখনি

আকাশের বুক চিরে যদি ঝরে জল

বুঝে নেবো আভিমানে তুমি কেঁদেছ

সরোবরে যদি ফোটে রক্তকমল

অনুভবে বুঝে নেবো মান ভেঙ্গেছ

রুপালি বিজলি যদি নিরব থাকে

কেঁদোনা  ভেবো শুধু আমি তো আছি

স্বপ্নলোকেতে যদি ময়ূরী ডাকে

বুঝে নিও আমি আছি কাছাকাছি


মমতায় চেয়ে থাকা

মমতায় চেয়ে থাকা সেই চোখ নেই

তুমি আছো আমি আছি আছে সকলেই

সাগর বেলায় বসে সেই মধু রাত / তারাগুলো ঝরে গিয়ে এনেছে প্রভাত

স্বপ্নে ঘেরা ছিল অবুঝ সে দিন / অজানা ব্যাথার মাঝে হয়েছে বিলিন

বালুচরে ঝরেছিল যে আঁখিজল / আজো তা হয়ে আছে শিশিরে সজল

সাগর বেলায় বসে সেই মধু রাত / তারাগুলো ঝরে গিয়ে এনেছে প্রভাত

শায়ক বেঁধা পাখী দারুন ব্যাথায় / কেন জানি উড়ে যায় সেই নিরালায়

ভেঙ্গে যাওয়া পাখীটির আহত সে মন তবু কেন দেখে যায় সুখেরই স্বপন

সাগর বেলায় বসে সেই মধু রাত / তারাগুলো ঝরে গিয়ে এনেছে প্রভাত


মনে পরে

মনে পরে এক জোছনা রাতে / হাত রেখে শুধু তোমারি হাতে

গেঁথেছি কত না স্বপ্নগাঁথা / চোখে ছিল দুজনার কত যে কথা

ফেলে আশা কিছু স্মৃতি পিছু ডেকে যায় / কানে কানে কিছু কথা বলে দিয়ে যায়

হারিয়েছ আজ তুমি কোন অজানায় / স্মৃতির মাঝে খুঁজি শুধুই তোমায়

আলো ভেবে যারে খুঁজি সেতো আলেয়া / তবু মনে ভেসে ওঠে তোমারি ছায়া

সুখ পাখী নীড় ভেঙ্গে গ্যাছে অজানায় / খুঁজে ফিরি তবু সুখ কিসেরই মায়ায়


নিঝুম রাতের আঁধারে

নিঝুম রাতের আঁধারে / জোনাকিরা মিটিমিটি জ্বলে

তুমি নেই আজ আমি শুধু আছি / একা বেঁচে আছি

মেঘলা আকাশ / পথের নেই কোন দিশা

তবুও তোমায় খুঁজেছি আমি / খুঁজেছি একা একা

নিঝুম রাতের আঁধারে / জোনাকিরা মিটিমিটি জ্বলে

তুমি নেই আজ আমি শুধু আছি / একা বেঁচে আছি

সুখের সে দিন / চোখের জলে মুছে গ্যাছে

তবুও সে সুখ খুঁজেছি আমি / চোখের জলের মাঝে

নিঝুম রাতের আঁধারে / জোনাকিরা মিটিমিটি জ্বলে

তুমি নেই আজ আমি শুধু আছি / একা বেঁচে আছি


তোমায়

তোমায় / খুঁজেছি বিলীন সে মরুতে

কোথায় / রয়েছো ভুলে এ আমাকে

তারাগুলো দ্বীপ জ্বালে দূর মায়াতে

পিছু ফেলে আসা কত স্বপ্ন রঙিন

দুখ ছায়া বারে বারে করেছে মলিন

সুরে সুরে কত কথা গেঁথেছি আমি

ধীরে ধীরে কেটে গ্যাছে কত রজনী

চোখে চোখে খুঁজি সেই সোনালী ঝলক

মাঝরাতে কেঁদেছি পড়েনি পলক

আধো আলো আধো ছায়া এই তো জীবন

হবে না দ্যাখা জানি আসবে মরণ


চাঁদ কিছু আলো

চাঁদ কিছু আলো তোমায় মেখে দিলো

রঙিন স্বপ্নে কখন যেন গোধূলী এলো

গোধূলী এ ক্ষণে তুমি কোথায় হারালে

জোনাকিরা দিলো আলো তুমি দ্বীপ জ্বালালে

চাঁদ কিছু আলো তোমায় মেখে দিলো

রঙিন স্বপ্নে কখন যেন গোধূলী এলো

বিরহী এ মনে প্রনয়ের মাধুরি

বাঁশরির সুরে সুরে মাতে মন ময়ুরি

চাঁদ কিছু আলো তোমায় মেখে দিলো

রঙিন স্বপ্নে কখন যেন গোধূলী এলো


ভন্ড বাবা

কলি কালের ভন্ড বাবা / খাজা বাবার নাম ভাঙ্গাইয়া
ধর্মটারে ল্যাঙ মারিয়া / ভাঁওতাবাজির এমডি সাজে
বাবারে বাবা ও বাবা ভন্ড বাবা / বাবারে বাবা ও বাবা কলি বাবা

আবারো সেই এমডি বাবার / মুরিদ নামের চামচাগুলা
হাদিস কোরআন ভুইলা গিয়া / বাবার লেখা থিসিস পড়ে
বাবারে বাবা ও বাবা ভন্ড বাবা / বাবারে বাবা ও বাবা কলি বাবা

হাজার টাকার ভিজিট লইয়া / পীর বলিয়া ডিগ্রি লাগায়
ওরস কইরা ধান্দা করে / ট্যাক্স আলাগো চুপকি দেখায়
বাবারে বাবা ও বাবা ভন্ড বাবা / বাবারে বাবা ও বাবা কলি বাবা

মুরিদ সব জিকির করে / কলকি ভরা গাজার নেশায়
পীর বাবারে সেজদা করে / পাপের স্রোতে জীবন ভাসায়
বাবারে বাবা ও বাবা মর্ডান বাবা / বাবারে বাবা ও বাবা গাজার বাবা